সমান্তরাল মহাবিশ্বের সন্ধান পাওয়ার আসল গল্প

সমান্তরাল মহাবিশ্বের সন্ধান পাওয়ার আসল গল্প

সমান্তরাল মহাবিশ্বের সন্ধান পাওয়ার আসল গল্প

লেখক: জাভেদ ইকবাল

লেখাটি ব্যাঙাচি - অক্টোবর ২০২০ (গুজব) -এ প্রকাশিত হয়েছে


সমান্তরাল মহাবিশ্ব, যেখানে সময় অতীতের দিকে যায়।

মে, ২০২০ এর দিকে “নাসা সমান্তরাল মহাবিশ্বের সন্ধান পেয়েছে” শীর্ষক একটা বিষয় ভাইরাল হয় সোশাল মিডিয়াতে। এখন প্রশ্ন হলো

সমান্তরাল মহাবিশ্বের সন্ধান মিলেছে?  

- না, নাসা এমন কোনো কথা বলেনি।

দক্ষিণ মেরুতে একটা গবেষণাগার আছে, যেটা নিউট্রিনো ধরার চেষ্টা করছে। তারা ৩৭ কিলোমিটার উঁচুতে বিশাল বড়ো বেলুনের সাথে অ্যান্টেনা লাগিয়ে রেখেছে। এটার নাম 'অ্যানিটা' (Antarctic Impulsive Transient Antenna or ANITA)

নিউট্রিনোকে কিছু আটকাতে পারে না। ধারণা করা হয়, আমাদের শরীরের ভেতর দিয়ে প্রতি সেকেন্ডে ১০০,০০০,০০০,০০০,০০০টি করে নিউট্রিনো যাচ্ছে। যদি নিউট্রিনো খুব শক্তি অর্জন করে, তাহলে খুব সংবেদনশীল যন্ত্র দিয়ে পরমাণুর সাথে নিউট্রিনোর সংঘর্ষ ধরা যায়। অ্যানিটা সেই কাজই করছে। নিউট্রিনো মহাকাশ থেকে আসার কথা, কিন্তু অ্যানিটা গত কয়েক বছরে দেখেছে যে মহাকাশ থেকে না এসে পৃথিবীর ভেতর থেকে কিছু নিউট্রিনো আসছে বলে মনে হয়। 

আমাদের জানা পদার্থবিজ্ঞান দিয়ে এটাকে ব্যাখ্যা করা যায় না। তার কোনো ব্যাখ্যা না পেয়ে গবেষকরা বলেছিলেন, প্যারালাল ইউনিভার্স একটা ব্যাখ্যা হতে পারে। নিউ সায়েন্টিস্ট (খুব সিরিয়াস ম্যাগাজিন), যেখানে সম্পূর্ণ আর্টিকেলটা পড়তে টাকা দিয়ে গ্রাহক হওয়া লাগে, একই হেডলাইন ব্যবহার করেছে কিন্তু আসলে আলোচনা করেছে এরকম একটা কাল্পনিক মহাবিশ্বের। যেহেতু সম্পূর্ণ লেখাটা পড়তে টাকা দেওয়া লাগে, তাই অনেক পত্রিকা শুধু ভূমিকাটা পড়েই বাকিটা নিজেরা বানিয়ে নিয়েছে।  

অ্যানিটার মূল গবেষক পিটার গরহাম বলেছেন, “যখন আর কোনো ব্যাখ্যা টিকে থাকবে না, তখন প্যারালাল ইউনিভার্স নিয়ে চিন্তা করা যেতে পারে, এখন সেটা করার দরকার নেই।”

Gorham, who is the principal investigator of ANITA, told ScienceAlert

We have encountered a small number of anomalies in our data, and once we have exhausted all of the possible explanations within the 'Standard Model' of physics, only then is time to consider other ideas that push those boundaries - we are really not there yet, certainly not at the point where parallel universes are necessary!

তাই, “সমান্তরাল মহাবিশ্ব যেখানে সময় অতীতের দিকে যায়” আপাতত কল্পবিজ্ঞানের জগতেই থাকুক।

তথ্যসুত্র:

https://www.sciencealert.com/of-course-nasa-did-not-detect-a-parallel-universe-in-antarctica 


লেখক: জাভেদ ইকবাল

ব্যাঙের ছাতার বিজ্ঞান

post written by:

0 Comments: